1. [email protected] : BD News : BD News
  2. [email protected] : Breaking News : Breaking News
বিএনপির মহাসচিব কে: ফখরুল না হারিছ চৌধুরী? | News12
January 21, 2022, 4:20 am

বিএনপির মহাসচিব কে: ফখরুল না হারিছ চৌধুরী?

Staff Reporter
  • Update Time : Monday, December 27, 2021
  • 209 Time View

বিএনপির মহাসচিব কে এ নিয়ে নতুন করে বিভ্রান্ত সৃষ্টি করা হয়েছে। আমরা সকলেই জানি বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, তিনি বাংলাদেশে দল পরিচালনা করছেন।

কিন্তু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্যসহ বিভিন্ন দেশে সাম্প্রতিক বিএনপির প্যাডে একটি লিখিত চিঠি গিয়েছে, সেই চিঠিতে স্বাক্ষর করেছেন হারিছ চৌধুরী যিনি বিএনপির সেক্রেটারি জেনারেল বা মহাসচিব হিসেবে দাবি করেছেন। উল্লেখ্য যে, গত ৮ ডিসেম্বর ওয়াশিংটনে বিভিন্ন সিনিটরদের কাছ থেকে বিএনপির পক্ষ থেকে একটি চিঠি দেয়া হয়েছে।

ইংরেজিতে লেখা চিঠিতে বলা হয়েছে, বেগম খালেদা জিয়া গুরুতর অসুস্থ এবং তিনি লিভার সিরোসিসে আক্রান্ত। চিকিৎসকরা উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে যাওয়ার কথা বলছেন।

চিঠিতে এটাও উল্লেখ করা হয়েছে, বেগম খালেদা জিয়ার যে অসুস্থতা এবং তাঁর যে চিকিৎসা সেটি বাংলাদেশের সম্ভব নয়, এজন্য তার উন্নত চিকিৎসার জন্য যুক্তরাজ্য, জার্মানি অথবা যুক্তরাষ্ট্রে নেয়া দরকার। কিন্তু বেগম খালেদা জিয়া রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার বলে চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে এবং এজন্য সরকার তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য দেশের বাইরে যেতে দিচ্ছেনা।

চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে, এটি মানবাধিকারের লঙ্ঘন। বেগম খালেদা জিয়াকে তিনবারের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দাবি করে ওই চিঠিতে বলা হয়েছে যে, তিনি রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার এবং তার বিরুদ্ধে যে মামলাগুলো হয়েছে তা সবই রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে। চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে যে, বেগম খালেদা জিয়াকে যদি উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে যেতে না দেওয়া হয় তাহলে তার জীবন শঙ্কার মধ্যে পড়তে পারে।

মানবিক কারণে এই বিষয়ে সহানুভূতি এবং সহযোগিতার আহ্বান করা হয়েছে চিঠিতে। এই চিঠিটি অন্তত ১২ জন মার্কিন কংগ্রেসম্যান এবং ৮জন সিনেটরকে দেওয়া হয়েছে। তারা যেন এ বিষয়ে মুখ খোলেন সেটির জন্য লবিং করা হচ্ছে। একই সাথে যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্টের এমপি, হিউমেন রাইটসের গ্রুপসহ বিভিন্ন মহলে এই চিঠিটি এখন পাওয়া যাচ্ছে। এই চিঠি পাওয়ার পর বিএনপির মধ্যে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বিএনপির মহাসচিব হওয়া সত্ত্বেও হারিছ চৌধুরীর স্বাক্ষরে এবং তাকে মহাসচিব পরিচয় করিয়ে দিয়ে কেন এই চিঠি দেওয়া হলো সেটি নিয়ে রহস্য তৈরি হয়েছে। বিএনপির অনেকে প্রশ্ন তুলেছেন, বাংলাদেশে যে বিএনপি রয়েছে সেটি কি শাখা বিএনপি? আসল বিএনপি কি লন্ডনে কাজ করছে যে, বিএনপির চেয়ারম্যান তারেক জিয়া এবং মহাসচিব হারিছ চৌধুরী।

অনেকে মনে করেন যে, মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে বাদ দিয়ে হারিছ চৌধুরীকে দিয়ে এই চিঠি দেয়ার পেছনে অন্য কোন উদ্দেশ্য রয়েছে। তবে বিএনপির কেউ কেউ মনে করেন যে, এটি একটি বিভ্রান্তিকর তথ্য। আসলে হারিছ চৌধুরী চিঠি দিয়েছে অন বিহাফ অব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, অন বিহাফ অব সেক্রেটারি। যে কেউ মহাসচিব এর পক্ষে এরকম চিঠি দিতে পারেন।

যেহেতু হারিছ চৌধুরী এখন লন্ডনে অবস্থান করছেন, সেজন্য তিনি চিঠি দিয়েছেন। তবে অধিকাংশ বিএনপি নেতাই এর সঙ্গে একমত নন। তারা মনে করেন যে, মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বহাল তবিয়তে আছেন। তিনি স্বাক্ষর প্রদানে অক্ষম নন। তিনি যদি স্বাক্ষর প্রদানে সক্ষম থাকেন তাহলে তার নামে চিঠি দিতে অসুবিধা কি। এটির পেছনে অন্য কোন রহস্য রয়েছে।

তবে কেউ কেউ মনে করেন যে, যেহেতু মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর দেশে আছেন, দেশে থেকে এ ধরনের চিঠি যদি তিনি দেন তাহলে তার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগ আনা হতে পারে।

এ কারণেই তার নামটি দেওয়া হয়নি। তবে অনেকেই বলছেন যে, মূল বিএনপি এখন লন্ডনে। আর বাংলাদেশে যে বিএনপি আছে সেটি একটি শাখা বিএনপি। আর সেই শাখা বিএনপির প্রধান হলেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, কেন্দ্রীয় বিএনপির মহাসচিব হলেন হারিছ চৌধুরী।

bangla insider

Please Share This Post in Your Social Media

Comments are closed.

Releted
কপিরাইট : সর্বস্বর্ত সংরক্ষিত (c) ২০২২
Develper By ITSadik.Xyz