1. [email protected] : BD News : BD News
  2. [email protected] : Breaking News : Breaking News
এবার বিএনপিতে নতুন হাওয়া বাদ পড়ছেন পুরোনোরা | News12
January 21, 2022, 8:45 pm

এবার বিএনপিতে নতুন হাওয়া বাদ পড়ছেন পুরোনোরা

Staff Reporter
  • Update Time : Sunday, December 26, 2021
  • 138 Time View

বর্তমানে দেখা যাচ্ছে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদি দল বিএনপির মধ্যে বেশ তোলপাড় শুরু হয়েছে এবং এটি মুলত শুরু হয়েছে আগামী দিনের আন্দোলন-সংগ্রামের প্রস্তুতি হিসেবে দলকে পুনর্গঠনের জন্য। এর অংশ হিসেবে স্থানীয় পর্যায়ে দীর্ঘ দিনের পুরোনো নেতাদের বাদ দিয়ে নতুনদের সামনে আনা হচ্ছে। এতে করে দল চাঙা হবে বলে প্রত্যাশা নীতি নির্ধারকরদের। তবে অভিজ্ঞদের এভাবে ঝেড়ে ফেলে নতুন নেতৃত্ব প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ কতটা সফল হবে তা নিয়ে অনেকের মধ্যে সংশয় আছে। চলমান পুনর্গঠন প্রক্রিয়ার স্বচ্ছতা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন অনেকে।

বিএনপিতে স্থানীয় পর্যায়ে নেতৃত্বে বদলের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে বেশ কিছুদিন আগেই। এরই মধ্যে অনেক প্রভাবশালী নেতাকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। দীর্ঘ বছর পদে থাকা নেতাদের পাশাপাশি তাঁদের অনুসারীদেরও বাদ

দেওয়া হচ্ছে। গত ৯ ডিসেম্বর খুলনা জেলা ও মহানগর, রাজশাহী মহানগর ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার নতুন আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করা হয়। ওই দিন নজরুল ইসলাম মঞ্জুকে বাদ দিয়ে খুলনা মহানগর শাখার আহ্বায়ক কমিটি করা হয়। এই কমিটি গঠনের মধ্য দিয়ে খুলনা বিএনপিতে মঞ্জুর ৩৩ বছরের একক আধিপত্যের অবসান ঘটে। গতকাল শনিবার কেন্দ্রীয় পদ থেকেও অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে মঞ্জুকে। দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে তাঁর বিরুদ্ধে এই ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে বলে দলের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। বিএনপির খুলনা বিভাগীয় ভারপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে অনিন্দ্য ইসলাম অমিতকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

একইভাবে রাজশাহী মহানগর কমিটি থেকে বাদ পড়েছেন আরেক প্রভাবশালী নেতা সাবেক মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল। সেখানে প্রবীণ নেতা কবির হোসেন ও মিজানুর রহমান মিনু অনুসারীদের স্থান দেওয়া হয়েছে নতুন কমিটিতে। চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা কমিটি থেকে সরানো হয়েছে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ও সংসদ সদস্য হারুন অর রশিদের অনুসারীদের। এর আগে মজিবর রহমান সরোয়ারকে বাদ দিয়ে বরিশাল মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক কমিটি করা হয়। এই কমিটির মাধ্যমে বরিশাল বিএনপিতে সরোয়ারের প্রায় ৩০ বছরের একক আধিপত্যের অবসান হয়।

স্থানীয় ও জাতীয় পর্যায়ে পুরোনো নেতাদের সরানোয় নতুনেরা নেতৃত্ব দেওয়ার সুযোগ পাচ্ছেন। অন্যদিকে অভিজ্ঞতার ঘাটতির জন্য অন্য আশঙ্কার কথাও বলছেন নেতা-কর্মীরা। তাঁরা বলছেন, দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি ও তাঁর বিদেশে চিকিৎসার দাবি আদায়ে নানা কর্মসূচি পালন করছে বিএনপি। একই সঙ্গে আগামী জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে সরকার পতনের আন্দোলনের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে। এই অবস্থায় নতুন নেতৃত্বের ওপর ভর করে কতখানি সাফল্য আসবে, সে নিয়ে সংশয় রয়েছে।

বিএনপির শীর্ষস্থানীয় নেতারা বলছেন, দল পুনর্গঠন একটি চলমান প্রক্রিয়া। নতুন কমিটি করার ক্ষেত্রে যোগ্য ও ত্যাগী নেতাদের মূল্যায়ন করা হচ্ছে। আর নেতৃত্ব নির্বাচনের ক্ষেত্রে ভালোভাবে খোঁজ-খবর নেওয়া হচ্ছে। দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের নির্দেশ অনুসরণ করে পুনর্গঠনের প্রক্রিয়া চলছে। এ বিষয়ে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর আজকের পত্রিকাকে বলেন, ‘এই সব কথা কারা বলছেন, আমি জানি না। এটা আমাদের দলের অভ্যন্তরীণ বিষয়। যেটা ভালো মনে করা হচ্ছে, সেটাই করা হচ্ছে।’

বিএনপিতে এবার দেখা যাচ্ছে অনেক প্রবীন রাজনীতিবিদকে দল থেকে প্রত্যাহার করা হচ্ছে, এই ঘটনার প্রেক্ষিতে জানা জাচ্ছে আগামী দিনের আন্দোলন-সংগ্রামের প্রস্তুতি হিসেবে দলকে পুনর্গঠনের জন্য তারা এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। গতকাল দেখা গিয়েছে খুলনার বিভাগীয় বিএনপির নেতা নজরুল ইসলাম মঞ্জু করে দল থেকে প্রত্যাহার করা হয়েছে

Please Share This Post in Your Social Media

Comments are closed.

Releted
কপিরাইট : সর্বস্বর্ত সংরক্ষিত (c) ২০২২
Develper By ITSadik.Xyz