1. [email protected] : BD News : BD News
  2. [email protected] : Breaking News : Breaking News
নতুন বছরে সরকারের বড় পরিবর্তনের আভাস | News12
January 22, 2022, 9:03 pm

নতুন বছরে সরকারের বড় পরিবর্তনের আভাস

Staff Reporter
  • Update Time : Friday, December 24, 2021
  • 135 Time View

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এখন মালদ্বীপ সফরে রয়েছেন। আগামী ২৭ ডিসেম্বর তার দেশে ফেরার কথা। এর পরপরই ২০২১ শেষ হয়ে যাচ্ছে, নতুন বছর শুরু হচ্ছে। আগামী ৭ জানুয়ারি সরকারের তিন বছর মেয়াদ পূর্তি হবে। তৃতীয় মেয়াদে আওয়ামী লীগ সরকার অনেকগুলো চাপের মধ্যে রয়েছে। বিশেষ করে রাজনৈতিক পরিস্থিতি ক্রমশ দানা বাঁধতে শুরু করেছে। আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক অবস্থাও অতটা ভালো নেই।

দলের ভেতর বিভক্তি, অন্তঃকলহ প্রচণ্ড আকার ধারণ করেছে। এরকম পরিস্থিতিতে নির্বাচনের আগের দুইবছর সরকারকে কঠিন পথ পাড়ি দিতে হবে বলেই পর্যবেক্ষক মহল মনে করছেন। আর সেটিকে মাথায় রেখেই সরকারে বড় ধরনের পরিবর্তনের আভাস পাওয়া যাচ্ছে। ইতিমধ্যে, সচিব পর্যায়ে বড় ধরণের পরিবর্তন হয়েছে। অপেক্ষাকৃত তরুণ এবং মেধাবীদেরকে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয়ের সচিবের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

কিন্তু একটি রাজনৈতিক সরকার শুধু সচিব দিয়ে চলেনা। মন্ত্রীদেরও গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব রয়েছে। সে কারণেই মন্ত্রিসভার রদবদলের বিষয়টি বিভিন্ন সময় আলোচনা হয়েছে কিন্তু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত তিন বছরে মন্ত্রিসভায় বড় রকমের হাত দেননি। শুধুমাত্র কিছু রুটিন ছোটখাটো পরিবর্তনের মধ্য দিয়েই মন্ত্রীসভাকে রেখেছেন। যদিও এই মন্ত্রিসভা নিয়ে আওয়ামী লীগ সরকার সবচেয়ে বেশি সমালোচিত হচ্ছে।

চারবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে মন্ত্রিসভা গঠন করা হয়েছে। অনেকেই মনে করেন যে, এই চারবারের মধ্যে বর্তমান মন্ত্রিসভাই সবচেয়ে অদক্ষ, নিষ্প্রভ। তারপরও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মন্ত্রিসভার রদবদল করেননি তার নিজস্ব বিবেচনা এবং পরিকল্পনা থেকে। তবে এবার মন্ত্রিসভায় বড় ধরনের রদবদল হতে পারে বলে ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে। বিশেষ করে সামনের দিনগুলোতে রাজনৈতিক আন্দোলন শুরু হবে এবং সরকারকে বিভিন্ন বিষয়ে জনগণের মুখোমুখি হতে হবে।

এই বিবেচনা থেকেই সরকার মন্ত্রিসভায় রদবদল করতে পারেন। গত তিন বছরে সরকারের সবচেয়ে বড় বিষয় ছিলো যে, আমলাদের কর্তৃত্ব। বিশেষ করে করোনার শুরুর পর থেকে আমলারা নীতিনির্ধারণী পর্যায়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ হয়ে ওঠেন। সেই অবস্থারও কিছুটা পরিবর্তন নতুন বছরে হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বরা যদি মন্ত্রিসভায় আসেন সে ক্ষেত্রে মন্ত্রীরা আবার পাদপ্রদীপে আসতে পারেন বলে অনেকে মনে করছেন। এছাড়াও সরকার কতগুলো গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে মনোযোগী হবেন।

সরকারের সামনে অনেকগুলো চ্যালেঞ্জ এখন রয়েছে। প্রথম চ্যালেঞ্জ হচ্ছে সরকারকে একটি নতুন নির্বাচন কমিশন গঠন করতে হবে এবং এই নির্বাচন কমিশন জাতীয় এবং আন্তর্জাতিকভাবে গ্রহণযোগ্য হতে হবে। এই কারণেই এখন রাষ্ট্রপতি সংলাপ করছেন। কিন্তু নির্বাচন কমিশন কিভাবে গঠিত হবে সেটি পুরোপুরিভাবে নির্ভর করছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সিদ্ধান্তের উপর। এক্ষেত্রে তিনি বড় ধরনের চমক দেখাতে পারেন বলে বিভিন্ন দায়িত্বশীল সূত্র নিশ্চিত করেছে।

দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণ, গণপরিবহনে নৈরাজ্যসহ বিভিন্ন ইস্যুতে সরকার সমালোচিত হচ্ছে। আর সেকারণে নতুন বছরে এসব ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হয়তো ব্যাপক পরিবর্তন আনবেন। আওয়ামী লীগের মধ্যে নানা বিভক্তি, কোন্দল ক্রমশ দানা বেঁধে উঠছে। সে কারণে শেখ হাসিনা নতুন বছরে দলের সাংগঠনিক বিষয়ে বড় ধরনের পরিবর্তন আনতে পারেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। সবকিছু মিলেই প্রধানমন্ত্রী দেশে ফেরার পর নতুন বছরে সরকার নতুনরূপে আত্মপ্রকাশ করতে চায় বলে সরকারের দায়িত্বশীল সূত্রগুলো জানিয়েছে। কারণ, এই বছর থেকে শুরু হবে নির্বাচনের কাউন্টডাউন।

Please Share This Post in Your Social Media

Comments are closed.

Releted
কপিরাইট : সর্বস্বর্ত সংরক্ষিত (c) ২০২২
Develper By ITSadik.Xyz