1. [email protected] : BD News : BD News
  2. [email protected] : Breaking News : Breaking News
নারায়ণগঞ্জে কি শামীম অধ্যায় যুগের অবসান হচ্ছে? | News12
January 21, 2022, 4:00 am

নারায়ণগঞ্জে কি শামীম অধ্যায় যুগের অবসান হচ্ছে?

Staff Reporter
  • Update Time : Thursday, December 23, 2021
  • 146 Time View

আগামী ১৬ জানুয়ারি নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। সেই নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন সেলিনা হায়াৎ আইভী। সেলিনা হায়াৎ আইভী রাজনৈতিকভাবে আওয়ামী লীগ পরিবারের সন্তান এবং তিনি জনপ্রিয় রাজনৈতিক নেতা এ নিয়ে কোন সন্দেহ নেই।

আর নারায়ণগঞ্জে যদি আওয়ামী লীগ একাট্টা হয়ে নির্বাচন করে তাহলে সেলিনা হায়াত আইভীর পরাজয়ের কোন কারণ নেই। কিন্তু নারায়ণগঞ্জ নির্বাচন নিয়ে হঠাৎ করেই রাজনীতির মাঠে নানারকম উত্তাপ এবং গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়েছে।

অনেকেই মনে করছেন যে সেলিনা হায়াৎ আইভী যদি পরাজিত হন তবে তার প্রধান কারণ হবে শামীম ওসমান। শামীম ওসমান নারায়ণগঞ্জের জেলার আরেকজন প্রভাবশালী নেতা। মজার ব্যাপার হলো শামীম ওসমান এবং সেলিনা হায়াৎ আইভী দুইজনই আওয়ামী লীগ পরিবারের সন্তান। দুজনের পিতারই আওয়ামী লীগের জন্য প্রচুর ত্যাগ রয়েছে এবং দুটি পরিবারই নারায়ণগঞ্জের ঐতিহ্য।

এই দুই নেতারই কখনো কোন বিচ্যুতি ঘটেনি এবং এই দুই নেতাই আওয়ামী লীগের আদর্শের প্রতি অনুসারী এবং বিশ্বস্ত। কিন্তু নিজের নাক কেটে অন্যর যাত্রা ভঙ্গ বলতে যা বুঝায় তা করতে দুজনই পারঙ্গম। এই দুজনই আওয়ামী লীগ করলেও দুজন দুজনের মুখোমুখি এবং দুইজন দুইজনের সর্বনাশ কামনা করেন সর্বক্ষণ। আর এ কারণেই নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচন নিয়ে এখন রাজনীতির মাঠে উত্তপ্ত আলোচনা শুরু হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই নির্বাচনকে আলাদা গুরুত্ব দিচ্ছেন এবং দলের দুইজন জনপ্রিয় হেভিওয়েট নেতা কে নির্বাচন পরিচালনার দায়িত্ব দিয়েছেন। কিন্তু অনেকেই মনে করছেন যে নারায়ণগঞ্জের নির্বাচনের এক্স ফ্যাক্টর হলেন শামীম ওসমান।

শামীম ওসমানের কারণেই তৈমুর আলম খন্দকার স্বতন্ত্র হিসেবে সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে দাঁড়িয়েছেন বলে জানা গেছে। অনেকেই মনে করছেন যে শামীম ওসমান নেপথ্যে তৈমুর আলম খন্দকারকে সমর্থন দিচ্ছেন। তার প্রধান লক্ষ্য হলো সেলিনা হায়াৎ আইভীর যুগের অবসান ঘটানোর, যেন তিনি আর মেয়র পদে নির্বাচিত হতে না পারেন। আর যদি মেয়র পদে পরাজিত হন তাহলে নারায়ণগঞ্জের আওয়ামী লীগের রাজনীতির কর্তৃত্ব পুরোটাই চলে যাবে শামীম ওসমানের হাতে।

এ জন্যই শামীম ওসমান এ ধরনের তৎপরতা চালাচ্ছেন বলে আওয়ামী লীগেরই অনেকের মনে করেন। তবে শামীম ওসমানের অনুসারীরা এ কথা অস্বীকার করেছেন। তারা মনে করছেন যে শামীম ওসমান আওয়ামী লীগের একনিষ্ঠ এবং তাঁর আওয়ামী লীগের আনুগত্য নিয়ে প্রশ্ন তোলা এক ধরনের ধৃষ্টতা। কাজেই আইভীকে তিনি পরাজিত করবে সেটি কখনোই বিশ্বাসযোগ্য নয়।

তবে শামীম ওসমান বিরোধীরা মনে করছেন যে আইভীকে অপদস্থ করার জন্য শামীম ওসমান যা খুশি তাই করতে পারেন এবং সেখানে তিনি দলের স্বার্থ দেখবেন না। আর তার প্রমাণ পাওয়া যাচ্ছে তৈমুর আলম খন্দকারের নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার মধ্য দিয়ে। আওয়ামী লীগের নেতারাই প্রশ্ন করেছেন যে অন্যান্য জায়গায় যখন বিএনপি প্রার্থীরা নির্বাচনে দাঁড়াচ্ছেন না সেখানে নারায়ণগঞ্জে বিএনপি’র প্রার্থীর কেন এত উৎসাহ। তিনি কেন ঘটা করে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন এবং জয়ের ব্যাপারে আশাবাদ প্রকাশ করছেন।

আওয়ামী লীগের বিভিন্ন নেতার সঙ্গে আলাপ করে দেখা গেছে তারা শামীম ওসমানের ব্যাপারে কঠোর মনোভাব দেখাচ্ছেন। তারা মনে করছেন যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আর যাই হোক দলের স্বার্থ যদি কেউ জলাঞ্জলি দেয় তাকে ক্ষমা করবেন না। এরকম বহু উদাহরণ তিনি সাম্প্রতিক সময়ে দিয়েছেন। এমনকি যারা দলের জন্য বিভিন্ন সময়ে অবদান রেখেছেন কিন্তু পরবর্তীতে দলের স্বার্থ সুরক্ষা করতে পারেননি তাদের বিরুদ্ধেও শেখ হাসিনা ব্যবস্থা নিতে কার্পণ্য করেননি।

কাজেই নারায়ণগঞ্জ নির্বাচনে যদি শামীম ওসমান সত্যি সত্যি বিএনপির প্রার্থীকে সমর্থন করেন বা আইভীর ব্যাপারে নেতিবাচক মনোভাব নিয়ে কাজ করেন তাহলে শামীম ওসমানের ভাগ্যাকাশে দুর্যোগের ঘনঘটা নামতে পারে বলে অনেকে মনে করছেন। তারা মনে করছেন যে এরকম পরিস্থিতি হলে ক্ষতিগ্রস্ত হবেন একজনই আর তিনি হচ্ছেন শামীম ওসমান। শেষ পর্যন্ত যদি নারায়ণগঞ্জের নির্বাচনে সেলিনা হায়াৎ আইভীর ছায়া প্রতিপক্ষ হিসেবে শামীম ওসমান থাকেন তাহলে হয়তো শামীম ওসমানের রাজনৈতিক যুগের অবসান ঘটতে পারে।

Please Share This Post in Your Social Media

Comments are closed.

Releted
কপিরাইট : সর্বস্বর্ত সংরক্ষিত (c) ২০২২
Develper By ITSadik.Xyz