1. [email protected] : BD News : BD News
  2. [email protected] : Breaking News : Breaking News
  3. [email protected] : sohag :
পরিবারে ভোটার সংখ্যা ১১, জালাল ভোট পেলেন তিনটি! | News12
January 29, 2022, 7:10 am

পরিবারে ভোটার সংখ্যা ১১, জালাল ভোট পেলেন তিনটি!

Staff Reporter
  • Update Time : Monday, November 29, 2021
  • 13 Time View

২০১১ সাল থেকে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন জালাল উদ্দিন। নিজের প্রথম চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করে ভোট পেয়েছিলেন ১৩৩টি। ২০১৬ সালে মেম্বার পদে নির্বাচন করে ভোট পেয়েছিলেন দুইটি আর এবার ২০২১ সালে এসে আবারও চেয়ারম্যান নির্বাচন করে ভোট পেয়েছেন মাত্র তিনটি! অর্থাৎ গত নির্বাচনের চেয়ে ভোট বেড়েছে মাত্র একটি। কিন্তু তার নিজের পরিবারেই রয়েছেন ১১ জন ভোটার! সাধারণ মানুষের প্রশ্ন, তাহলে তার পরিবারের অন্য ভোটগুলো গেলো কোথায়?

উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, ঝিনাইদহ কালীগঞ্জের সুন্দরপুর দূর্গাপুর ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ডে মেম্বর পদে প্রতিদ্বিদ্বতা করেছেন মোট চারজন। এর মধ্যে হুমায়ূন কবির ফুটবল প্রতিকে ৬৬০ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন। জাহাঙ্গীর আলম মোরগ প্রতিকে পেয়েছেন ৪১০ ভোট। আরেক প্রার্থী আব্বাস আলী কোনো ভোটই পাননি।

এ ওয়ার্ডের মেম্বার পদের ভোটে এলাকায় আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে। কারণ একজন মেম্বার পেয়েছেন শূন্য ভোট। তাহলে তার নিজের ভোট গেলো কোথায়? আর নির্বাচনে দীর্ঘদিনের আগ্রহী জালাল উদ্দিন পেয়েছেন মাত্র তিনটি ভোট, তাহলে তার পরিবারের ভোট গেলো কোথায়? ওই ইউনিয়নের বাসিন্দারা জানান, নির্বাচন সব জায়গাতেই হয়। কিন্তু ইউনিয়নের এক নম্বর ওয়ার্ডের জালাল উদ্দিন প্রতি নির্বাচনেই অংশ নেন। কখনও চেয়ারম্যান পদে আবার কখনও মেম্বর পদে। এ ওয়ার্ডে আরও একটি মজার ঘটনা ঘটেছে মেম্বর পদের প্রার্থী আব্বাস আলী শূন্য ভোট পেয়েছেন। তাহলে ওই প্রার্থীর নিজের ও তার পরিবারের ভোটটা গেলো কোথায়? এ নিয়ে এলাকায় হাসি হাস্য রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে।

ওই ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান ইলিয়াস রহমান মিঠু জানান, জালাল উদ্দিন নিজেই একজন নির্বাচন আগ্রহী মজার মানুষ। নিজের প্রচার নিজেই করেন। নিজের রিকসায় প্রচার মাইক বেধে নিজে চালিয়ে নিয়ে বেড়ান আর এলাকায় ভোট ভিক্ষা করেন। নিজের পোষ্টার নিজেই বিলি করেন।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আলমগীর হোসেন জানান, নির্বাচনী হলফনামায় উল্লেখ করেছেন জালাল উদ্দিন ১৯৮৭ সালে এসএসসি পাস করেছেন। তার বাড়ি সুন্দরপুর দূর্গাপুর ইউনিয়নের কাদিরকোল গ্রামে। তার পরিবারে স্ত্রী, ৪ ছেলে ও ৫ মেয়ে রয়েছেন। আগে রিকসা চালাতেন। এখন কবিরাজি করেন। প্রতি নির্বাচনে তিনি আগ্রহের সাথে অংশ নিয়ে কঠোর পরিশ্রম করে ভোট ভিক্ষা করেন। এবার তিনি মোট তিনটি ভোট পেয়েছেন। এর আগের নির্বাচনে পেয়েছিলেন দুইটি ভোট। তারপরও তিনি আগ্রহ হারাননি।

Please Share This Post in Your Social Media

Comments are closed.

Releted
কপিরাইট : সর্বস্বর্ত সংরক্ষিত (c) ২০২২
Develper By ITSadik.Xyz