সীমান্তে মুখোমুখি চীন-ভারতের ট্যাঙ্ক, আকাশে উড়ছে যু’দ্ধ বিমান

0
624

লাদাখ সীমান্তে চীন-ভারতের র’ক্তক্ষয়ী সংঘ’র্ষের রেশ কাটতে না কাটতেই প্যাংগং লেকের দক্ষিণে মুখোমুখি অবস্থানে দুই বাহিনী।

ভারতীয় সেনা সূত্রে আনন্দ বাজার জানায়, শনিবার রাত এবং রোবাবার সকালে দফায় দফায় সংঘ’র্ষের পরে দু’তরফে আলোচনা শুরু হলেও এখনও উ’ত্তেজনা রয়েছে প্রবল। পিপলস লিবাবেশন আর্মি আর্মার্ড রেজিমেন্ট মোতায়েন করায় একই পদক্ষেপ করেছে ভারতীয় সেনাও। বেশ কিছু এলাকায় দু’দেশের ট্যাঙ্ক বাহিনী পরস্পরের নিশানায় রয়েছে।

প্যাংগং পরিস্থিতি পর্যালোচানার জন্য মঙ্গলবার প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংহ উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক করেন। বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর, জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভাল, চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ জেনারেল বিপিন রাওয়াত এবং সেনাপ্রধান এম এম নরভণে বৈঠকে হাজির ছিলেন।

এই পরইস্থিতিতে মঙ্গলবার নয়াদিল্লির চিনা দূতাবাসের মুখপাত্র জি রং বলেন, ‘‘চিনে সেনা সংযত প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছে। আমরা চাই, ভারতীয় সেনা উস্কানিমূলক আচরণ বন্ধ করুক এবং বৈঠকে তাদের দেওয়া প্রতিশ্রুতি পালন করুক। ভারতীয় সেনা এলএসি লঙ্ঘন করার ফলেই এমন জটিল পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।

অবিলম্বে তা প্রত্যাহার করা প্রয়োজন।’’ অন্য দিকে, চিনের বিদেশমন্ত্রী ওয়াং ই একটি ফরাসি প্রতিষ্ঠান আয়োজিত বিদেশনীতি সংক্রান্ত আলোচনা সভায় বলেছেন, ‘‘ভারতের সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে সীমান্ত সংক্রান্ত বিবাদ মেটাতে আমরা প্রস্তুত। কিন্তু কোনও অবস্থাতেই সার্বভৌমত্বের প্রশ্নে আপস করা হবে না।”

এদিকে ভারতীয় সেনাবাহিনীর সূত্রে আনন্দবাজার জানাচ্ছে, সোমবার চুশুলে ব্রিগেডিয়ার স্তরের বৈঠকেও চিনের তরফে সেনা পিছনোর দাবি তোলা হয়েছে। ২৯ অগস্ট রাতে সমঝোতা সূত্র ভেঙে প্যাংগং লেকের দক্ষিণে ভারতীয় এলাকায় ঢুকতে গিয়ে প্রবল প্রতিরোধের মুখে পড়ে পিছু হটে লাল ফৌজ।

সেই সুযোগে, চুশুল থেকে কয়েকটি দিকে চিন নিয়ন্ত্রিত এলাকার অন্দরে বেশ কয়েক কিলোমিটার ঢুকে পড়ার দাবি করেছে ভারতীয় সেনাবাহিনী। কালা টপের মতো গুরুত্বপূর্ণ সা’মরিক ‘স্ট্র্যাটেজিক পজিশন’-সহ বেশ কিছু উঁচু গিরিশিরা এখন ভারতীয় সেনার দখলে বলে জানিয়েছে তারা।

এদিকে ভারতীয় গণমাধ্যম নিউজ ১৮ বাংলা জানায়, তিব্বতের কাছে চিন সীমান্তে ভারতের বিমান সেনাও অত্যন্ত তৎপর হয়েছে৷ ভারতীয় বিমান বাহিনীর যু’দ্ধবিমান তিব্বত সীমান্ত বরাবর কিন্নর ও লাহুলে সক্রিয় রয়েছে বলে দাবি করেছে তারা৷ এছাড়া সিমলায় ইতিমধ্যেই চিনুক হেলিকপ্টার পৌঁছে গেছে বলে দাবি তাদের।