উপার্জনের প্রথম বেতন দিয়ে মানবতার সাক্ষর রাখলেন পুলিশ সদস্য রাজীব

0
50

বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস ক্রাইসিসে পুলিশ সদস্যরা দিনরাত কাজ করে যাচ্ছেন। সরকারের সব নির্দেশনা মেনে হোম কোয়ারেন্টাইন ও লকডাউন নিশ্চিত করছেন। মানুষের ঘরে ঘরে খাবার পৌঁছে দিচ্ছেন। আবার চিকিৎসকদের যাওয়া আসার ব্যবস্থা করছেন। যারা মারা যাচ্ছেন তাদের দাফনসহ দেশের মানুষের সাহায্যে আরো অনেক কাজ করছেন।

পুলিশ সদস্যরা নিজেদের বৈশাখি ভাতা ও একদিনের বেতন মিলিয়ে প্রায় ২০ কোটি টাকা প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে দিয়েছেন। দেশের দুঃসময়ে দেশের বিভিন্নস্থানে কর্মরত পুলিশ সদস্যরা দারুণ সাহসী ও মানবিক ভূমিকা পালন করছেন।

করোনা পরিস্থিতিতে বাংলাদেশে সব থেকে বেশি বিপাকে পড়েছে খেটে খাওয়া নিম্ন ও মধ্যবিত্ত মানুষরা। দিনভর খাবারের সন্ধানে থাকাই এখন তাদের মূল যুদ্ধ।

এদিকে ব্যক্তি উদ্যোগে অনেক পুলিশ সদস্য অসহায় মানুষদের প্রতি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। এমন একজন যিনি জীবনের প্রথম বেতনের টাকায় শতাধিক দুস্থ মানুষের মাঝে ইফতার বিতরণ করেছেন।

সম্প্রতি টাঙ্গাইল সদরের শতাধিক ছিন্নমূল মানুষের মাঝে ইফতার বিতরণ করেন সদর থানার এসআই মোঃ সাঈদ ইবনে রাজীব।

শহরের পুরাতন বাসস্ট্যান্ড, কলেজ মোড়, নতুন বাসস্ট্যান্ড, বটতলা, নিরালা মোড়, শান্তিকুঞ্জ মোড়সহ বিভিন্ন এলাকার সুবিধা বঞ্চিতদের হাতে তিনি ইফতার তুলে দেন।

এবিষয়ে এসআই রাজীব বলেন- চাকরির প্রথম বেতন যখন হাতে পেয়েছি, তখনই ভেবেছি এই বেতনের টাকা দিয়ে আমি ছিন্নমূল মানুষের জন্য কিছু করবো। এই টাকা থেকেই অসহায়, দুস্থ ও ছিন্নমূল শতাধিক মানুষের জন্য ইফতারের আয়োজন করি। এই কাজে অন্য রকম এক তৃপ্তি পেয়েছি আমি। আমি চাই আমার দেশের প্রতিটি মানুষ ভালো থাকুক।