1. [email protected] : BD News : BD News
  2. [email protected] : Breaking News : Breaking News
২০২০ সাল থেকে থাকছে না জিপিএ-৫ | News12
January 22, 2022, 8:12 pm

২০২০ সাল থেকে থাকছে না জিপিএ-৫

Staff Reporter
  • Update Time : Wednesday, October 30, 2019
  • 109 Time View

আগামী শিক্ষাবর্ষ অর্থাৎ ২০২০ সাল থেকে জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষার ফলাফল পরিমাপক হিসাবে সর্বোচ্চ সূচক জিপিএ-৫ থাকছে না। এর পরিবর্তে করা হবে জিপিএ-৪।

শিক্ষা মন্ত্রণালয় এ লক্ষে কাজ করছে। তবে এ সিদ্ধান্ত সদ্য ২ নভেম্বর থেকে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষার ক্ষেত্রে কার্যকর হবে না।

আজ মঙ্গলবার (২৯ অক্টোবর) সচিবালয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

তিনি আরও জানান, আগামী ২ নভেম্বর থেকে শুরু হওয়া এবারের পরীক্ষায় মোট শিক্ষার্থী অংশ নেবে ২৬ লাখ ৬১ হাজার ৬৮২ জন শিক্ষার্থী। আগামী বছর থেকে ফলাফলের সর্বোচ্চ সূচক জিপিএ ৫ এর পরিবর্তে জিপিএ ৪ করা হবে।

কেন্দ্রের ২০০ মিটারের মধ্যে সংশ্লিষ্ট প্রত্যেকের ইলেক্ট্রনিক্স ডিভাইস ব্যবহার নিষিদ্ধ। পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্নের জন্য ২৫ অক্টোবর থেকে ১৫ নভেম্বর পর্যন্ত সব কোচিং বন্ধ রাখতে হবে। যদি কেউ নির্দিষ্ট সময়ের পরে আসে তবে তার কারণ ও যাবতীয় তথ্য লিখে কেন্দ্রে প্রবেশ করতে দিতে হবে।

পরীক্ষা উপলক্ষে বিভিন্ন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। সেগুলো হল:

১. পরীক্ষার্থীদের ৭ টি বিষয়ে ৬৫০ নম্বরের পরীক্ষা দিতে হবে। ইংরেজি ছাড়া সব বিষয়ে সৃজনশীল প্রশ্নে পরীক্ষা দিতে।

২. শারীরিক শিক্ষা ও স্বাস্থ্য, কর্ম ও জীবনমুখী শিক্ষা, চারু ও কারুকলা, কৃষি শিক্ষা, গার্হস্থ্য বিজ্ঞান, আরবি, সংস্কৃত, পালি বিষয়সমূহ এনসিটিবির নির্দেশনা অনুসারে ধারাবাহিক মূল্যায়নের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

৩. পরীক্ষা শুরুর কমপক্ষে ৩০ মিনিট আগে পরীক্ষার্থীদেরকে অবশ্যই পরীক্ষা কক্ষে প্রবেশ করতে হবে। তবে অনিবার্য কারণে কোনো পরীক্ষার্থীকে এ সময়ের পরে হলে প্রবেশ করতে দিলে তার বা তাদের নাম, রোল নম্বর, প্রবেশের সময়, দেরি হওয়ার কারণ ইত্যাদি একটি রেজিস্টারে লিপিবদ্ধ করে ওইদিনই সংশ্লিষ্ট শিক্ষা বোর্ডে প্রতিবেদন দিতে হবে।

৪. শ্রবণ প্রতিবন্ধীসহ অন্যান্য প্রতিবন্ধী পরীক্ষার্থীদের জন্য নির্ধারিত সময়ের অতিরিক্ত ২০ মিনিট সময় দেয়া হবে। দৃষ্টি প্রতিবন্ধী, সেরিব্রাল পলসিজনিত প্রতিবন্ধী এবং যাদের হাত নেই তাদের জন্য শ্রুতি লেখকের সুযোগ রাখা হয়েছে।

৫. প্রতিবন্ধী (অটিস্টিক, ডাউন সিনড্রোম, সেলিপলসি) পরীক্ষার্থীদের অতিরিক্ত ৩০ মিনিট সময় বৃদ্ধিসহ শিক্ষক/অভিভাবক/ সাহায্যকারীর বিশেষ সহায়তায় পরীক্ষা দেয়ারর সুযোগ রাখা হয়েছে।

৬. অষ্টম শ্রেণিতে অধ্যয়নরত সব শিক্ষার্থীই এ পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ পায়, কোন নির্বাচনী কিংবা প্রাক মূল্যায়ন পরীক্ষা দিতে হচ্ছে না। শিক্ষার্থীদের আলাদাভাবে কোনো বৃত্তি পরীক্ষা দিতে হবে না।

৭. পরীক্ষা চলার সময় পরীক্ষা কেন্দ্রের ২০০ মিটারের মধ্যে শিক্ষক, ছাত্র ও কর্মচারীদের মোবাইল, মোবাইল ফোনের সুবিধাসহ ঘড়ি, কলম এবং পরীক্ষা কেন্দ্রে ব্যবহারের অনুমতিবিহীন যেকোনো ইলেক্ট্রনিক্স ডিভাইস ব্যবহার নিষিদ্ধ থাকবে।

৮. পরীক্ষা চলাকালীন এবং এর আগে ও পরে পরীক্ষার্থী ও পরীক্ষা সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গ ব্যতীত অন্যদের পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রবেশ সম্পূর্ণরূপে নিষিদ্ধ থাকবে। এ সময়ে পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রবেশকারী অননুমোদিত ব্যক্তিবর্গের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

৯. আসন্ন জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা সুষ্ঠু, সুন্দর ও নকলমুক্ত পরিবেশে অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে ২৫ অক্টোবর থেকে ৫ নভেম্বর পর্যন্ত সব কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখার নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে।

১০. প্রশ্নপত্র ফাঁস এবং ফাঁসের গুজবমুক্ত পরিবেশে পরীক্ষা সম্পন্ন করার লক্ষ্যে কোন প্রতারক যাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে ভুয়া বা মিথ্যা প্রশ্নপত্র তৈরি করে প্রতারণা কিংবা গুজব সৃষ্টি করতে না পারে এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট সবাইকে সজাগ থাকতে হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Comments are closed.

Releted
কপিরাইট : সর্বস্বর্ত সংরক্ষিত (c) ২০২২
Develper By ITSadik.Xyz