1. [email protected] : BD News : BD News
  2. [email protected] : Breaking News : Breaking News
তারা কিভাবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে? | News12
January 21, 2022, 4:38 am

তারা কিভাবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে?

Staff Reporter
  • Update Time : Sunday, January 9, 2022
  • 202 Time View

সাম্প্রতিক সময়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র মানবাধিকার এবং দুর্নীতির বিরুদ্ধে অত্যন্ত সোচ্চার হয়েছে। মানবাধিকারের ব্যাপারে তারা শূন্য সহিষ্ণুতা নীতি গ্রহণ করেছে এবং এ কারণেই মানবাধিকার দিবসে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ট্রেজারি বিভাগ থেকে বাংলাদেশের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সাত কর্মকর্তার ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে।

একইভাবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন একটি নতুন নীতি জারি করেছেন যে নীতিতে তিনি বলেছেন যে, যাদের অবৈধ উৎস আছে, নগদ অর্থে যারা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি করেছেন, তাদের সম্পত্তির হিসাব নেওয়া হবে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের দুর্নীতিবিরোধী এবং এই মানবাধিকারের পক্ষে অবস্থান বিভিন্ন মহলে প্রশংসিত হয়েছে। তবে বিভিন্ন মহল কিছু প্রশ্ন উত্থাপন করেছে যে, অনেক মানবাধিকার লঙ্ঘনকারী, দুর্নীতিবাজ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র অবস্থান করছে এবং তারা বিভিন্ন দেশে বিচার এড়ানোর জন্য এখানে আশ্রয় নিয়েছে, অথচ তাদের ব্যাপারে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র নীরবতা অবলম্বন করছে।

বাংলাদেশের কথাই ধরা যাক। বাংলাদেশের বেশ কয়েকজন স্বীকৃত দুর্নীতিবাজ, খুনি এবং মানবাধিকার লঙ্ঘনকারী মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বহাল তবিয়তে অবস্থান করছে। অথচ মার্কিন প্রশাসন তাদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করছে না। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র যদি সত্যি সত্যি মানবাধিকারের সুরক্ষা এবং দুর্নীতির বিরুদ্ধে শূন্য সহিষ্ণুতা নীতি গ্রহণ করে তাহলে এদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা উচিত বলে সংশ্লিষ্ট মহল মনে করছে। বাংলাদেশে যে সমস্ত ব্যক্তিরা মানবাধিকার লঙ্ঘন করে এবং দুর্নীতি করে বিদেশে অবস্থান করছে তাদের মধ্যে রয়েছেন-

১. খুনি রাশেদ চৌধুরী: খুনি রাশেদ চৌধুরী বঙ্গবন্ধুর আত্মস্বীকৃত খুনিদের অন্যতম। তার বিরুদ্ধে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিম কোর্টে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়েছে। এই দণ্ডাদেশের পর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলস অবস্থান করছেন খুনি রাশেদ চৌধুরী। বাংলাদেশের পক্ষ থেকে একাধিকবার রাষ্ট্র থেকে ফেরত নেওয়ার জন্য আবেদন করা হলেও মার্কিন প্রশাসন সেই আবেদনে সাড়া দেয়নি। রাশেদ চৌধুরী শিশু হত্যাকারী, নারী হত্যাকারী। এমনকি অন্তঃসত্ত্বা এক নারীকে হত্যার অভিযোগে দোষী প্রমাণিত। এরকম একজন ঘৃণ্য মানবাধিকার লঙ্ঘনকারীকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র কিভাবে রাজনৈতিক আশ্রয় দিয়ে রাখে সেটি একটি বড় প্রশ্ন। রাশেদ চৌধুরীর মতো খুনিকে আশ্রয় দিয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র কিভাবে মানবাধিকার সুরক্ষার কথা বলে সে নিয়েও বিভিন্ন মহল থেকে প্রশ্ন উঠেছে।

২. জেনারেল মঈন ইউ আহমেদ: জেনারেল মঈন ইউ আহমেদ এক-এগারোর সময় সেনাপ্রধান ছিলেন এবং তার প্রত্যক্ষ এবং পরোক্ষ মদদেই ড. ফখরুদ্দীন আহমদের নেতৃত্বে তত্ত্বাবধায়ক সরকার গঠিত হয়েছিল। মঈন ইউ আহমেদ ওয়ান-ইলেভেনের পরে আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় এলেও কিছুদিন সেনাপ্রধানের দায়িত্ব পালন করেন এবং এই দায়িত্ব পালন শেষে তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র অবস্থান করছেন। মঈন ইউ আহমেদের বিরুদ্ধে মানবাধিকার লঙ্ঘন, বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড সহ একাধিক অভিযোগ রয়েছে এবং বিভিন্ন মানুষকে আইনের ব্যত্যয় ঘটিয়ে গ্রেফতার করা, চাঁদা আদায়ের অভিযোগে তার বিরুদ্ধে রয়েছে। তারপরও মঈন ইউ আহমেদ কিভাবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র আছেন সেটি একটি বড় প্রশ্ন।

৩. ব্রিগেডিয়ার বারী: ওয়ান-ইলেভেনের সময় ত্রাস ছিলেন ব্রিগেডিয়ার বারী। তিনি তার আগেও র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ানের অতিরিক্ত মহাপরিচালকের দায়িত্ব পালন করেছেন। মনে করা হয়, বাংলাদেশে বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড এবং ঘুমের অন্যতম প্রবক্তা হলেন ব্রিগেডিয়ার বারী। ব্রিগেডের বারী এখন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে রয়েছেন। তার বিরুদ্ধে মানবাধিকার লঙ্ঘন, গুম, হত্যাকাণ্ডের একাধিক অভিযোগ থাকার পরও তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে কীভাবে অবস্থান করছেন তা নিয়ে বিভিন্ন মহলে প্রশ্ন উত্থাপন করেছে।

৪. বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা: বাংলাদেশের একমাত্র প্রধান বিচারপতি যিনি দুর্নীতির দায়ে পদত্যাগে বাধ্য হয়েছিলেন এবং দুর্নীতির দায়ে দণ্ডিত হয়েছেন। দুই কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে তাকে বাংলাদেশের আদালত দণ্ড দিয়েছে। অথচ তিনিই এখন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে অবস্থান করছেন। একজন প্রধান বিচারপতি যখন দুর্নীতিবাজ হয় তখন তাদের দেশের গণতন্ত্র, মানবাধিকার এবং দুর্নীতিবিরোধী অভিযানের জন্য কতটা ভয়ংকর তা বলাই বাহুল্য। অথচ সুরেন্দ্র কুমার সিনহা কিভাবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র অবস্থান করছেন সে ব্যাপারে মার্কিন প্রশাসনের কোনো সুনির্দিষ্ট ব্যাখ্যা নেই।

bangla insider

Please Share This Post in Your Social Media

Comments are closed.

Releted
কপিরাইট : সর্বস্বর্ত সংরক্ষিত (c) ২০২২
Develper By ITSadik.Xyz